অর্থনীতি

দুই হাজার কোটি টাকা মূলধন ফিরে পেল ডিএসই

0Shares

গত সপ্তাহের পাঁচ কার্যদিবসের (২ থেকে ৬ ডিসেম্বর) মধ্যে চার কার্যদিবসেই দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্য সূচক বেড়েছে। এতে সপ্তাহ শেষে প্রায় দুই হাজার কোটি টাকা বাজার মূলধন ফিরে পেয়েছে ডিএসই।

সপ্তাহ শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৮৩ হাজার ৬২৫ কোটি টাকা। যা আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৩ লাখ ৮১ হাজার ৭৮২ কোটি টাকা। অর্থাৎ এক সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন বেড়েছে ১ হাজার ৮৪৩ কোটি টাকা।

এদিকে গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স বেড়েছে ৫১ দশমিক ৫৫ পয়েন্ট বা দশমিক ৯৮ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি কমে ২৪ দশমিক ৭০ পয়েন্ট বা দশমিক ৪৭ শতাংশ।

অপর দুটি সূচকের মধ্যে গত সপ্তাহে ডিএসই-৩০ আগের সপ্তাহের তুলনায় বেড়েছে দশমিক ৯২ পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য ৫ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি কমে ৭ দশমিক ৪১ পয়েন্ট বা দশমিক ৪০ শতাংশ।

আর ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক বেড়েছে দশমিক ৭৩ পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য ৬ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি কমে ৪ দশমিক শূন্য ৮ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৩ শতাংশ।

গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৪৬টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের মধ্যে ২২৪টির দাম আগের সপ্তাহের তুলনায় বেড়েছে। অপরদিকে দাম কমেছে ১০০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টির।

এদিকে সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবসে ডিএসইতে গড়ে লেনদেন হয়েছে ৬০০ কোটি ৭০ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয় ৬৩০ কোটি ৭৭ লাখ টাকা। অর্থাৎ প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন কমেছে ৩০ কোটি ৭ লাখ টাকা বা ৪ দশমিক ৭৭ শতাংশ।

আর গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৩ হাজার ৩ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ৩ হাজার ১৫৩ কোটি ৮৮ লাখ টাকা। সে হিসাবে মোট লেনদেন কমেছে ১৫০ কোটি ৩৫ লাখ টাকা বা ৪ দশমিক ৭৭ শতাংশ।

গত সপ্তাহে মোট লেনদেনের ৭৮ দশমিক ২০ শতাংশই ছিল ‘এ’ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির শেয়ারের দখলে। এছাড়া বাকি ৪ দশমিক শূন্য ৭ শতাংশ ‘বি’ ক্যাটাগরিভুক্ত, ১৫ দশমিক ৩৯ শতাংশ ‘এন’ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির শেয়ারের এবং ২ দশমিক ৩৪ শতাংশ ‘জেড’ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির শেয়ারের।

সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে সায়হাম কটনের শেয়ার। কোম্পানিটির ৭৯ কোটি ১১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা সপ্তাহজুড়ে হওয়া মোট লেনদেনের ২ দশমিক ৬৩ শতাংশ।

দ্বিতীয় স্থানে থাকা ড্রাগন সোয়েটারের শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৭২ কোটি ৬০ লাখ টাকা, যা সপ্তাহের মোট লেনদেনের ২ দশমিক ৪২ শতাংশ। ৬৯ কোটি ৪৭ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে অ্যাডভেন্ট ফার্মা।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন, এমএল ডাইং, খুলনা পাওয়ার, ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যাল, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড এবং এসকে ট্রিমস অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড।

0Shares